আজারবাইজানের বিজয়; দখলকৃত ভূখণ্ড থেকে সেনা প্রত্যাহার করতে রাজি আর্মেনিয়া

নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চল নিয়ে আজারবাইজানের সঙ্গে আর্মেনিয়ার গত ছয় সপ্তাহের প্রচণ্ড যু’দ্ধের অবসান হয়েছে। রাশিয়ার মধ্যস্থতায় আর্মেনিয়া এরইমধ্যে একটি চুক্তিতে সই করেছে যাতে আমেরিকানা দখলকৃত অঞ্চল থেকে সমস্ত সেনা প্রত্যাহার করার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে।

ইয়েরেভানের এই পদক্ষেপে আর্মেনীয় নাগরিকরা ক্ষুব্ধ হয়েছেন। তারা একে পরাজয় বলে বিবেচনা করছেন।

সোমবার (৯ নভেম্বর) শেষ বেলায় আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশনিয়ান যুদ্ধ সমাপ্তি ঘোষণা দেয়ার পর বেশ কিছুসংখ্যক বিক্ষুব্ধ লোকজন রাজধানী ইয়েরেভানে বিক্ষোভ করেন, এমনকি তারা বেশ কয়েকটি সরকারি ভবনে ভাংচুর করে।

যু’দ্ধ অবসানের ঘোষণায় প্রধানমন্ত্রী পাশনিয়ান বলেন, যু’দ্ধবিরতির এই চুক্তিকে পরাজয় হিসেবে গণ্য করা ঠিক হবে না।

সর্বশেষ যু’দ্ধবিরতি চুক্তিতে সই করেছেন আজারবাইজানের প্রেসিডেন্ট ইলহাম আলিয়েভ, রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন এবং আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী নিকোল পাশনিয়ান।

যু’দ্ধবিরতি চুক্তিতে তারা বলেছেন, নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে পূর্ণাঙ্গ যু’দ্ধবিরতি ঘোষণা করা হচ্ছে এবং মস্কো সময় রাত ১২টা থেকে সব ধরনের শত্রুতাপূর্ণ তৎপরতার অবসান হবে।

আর্মেনিয়ার প্রধানমন্ত্রী সম্মত হয়েছেন যে, তার দেশ আজারবাইজানের কাছে আগামী ১৫ নভেম্বরের ভিতরে কিছু অঞ্চল ছেড়ে দেবে।

এছাড়া ১ ডিসেম্বরের মধ্যে আরো ও কিছু অঞ্চল ছাড়া হবে। যু’দ্ধবিরতি চুক্তি অনুসারে নাগার্নো-কারাবাখ অঞ্চলে রাশিয়া ফেডারেশন ১৯৬০ জনের একটি শান্তিরক্ষী বাহিনী মোতায়েন করবে এবং তাদের কাছে ক্ষুদ্রাস্ত্র ও ৯০টি আর্মর্ড পার্সোনাল ক্যারিয়ার, ৩৮০টি অটোমোবাইল এবং বিশেষ সরঞ্জাম থাকবে।

insaf24

About namiradistro

Check Also

Ari Wibowo Mengaku Tak Pernah Sholat Saat Muslim

Pengakuan Ari Wibowo tentang perjalanan pindah keyakinan dari muslim ke kristen menyedot perhatian publik. Kini, …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

3 × five =